Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ ৭টি উপায়

Student অবস্থায় টাকা আয় করতে আমরা অনেকে চাই। কিন্তু সঠিক পদ্ধতি না জানার কারণে কখনও ইউটিউব, কখনও ফেসবুক আবার কখনও অন্যদের থেকে ইনকাম করার পরামর্শ নিচ্ছি। কিন্তু দিন শেষে এক টাকাও ইনকাম করতে পারছি না। তাই আজকের পোস্টে ঐ সকল ব্যক্তিদের জন্য Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ ৭টি উপায় শেয়ার করব।

 

Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ ৭টি উপায়

Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ ৭টি উপায় জানার আগে আমাদের কিছু বিষয়ে জানা উচিত আর তাহলো আমরা Student অবস্থায় কেন টাকা আয় করতে পারিনা। তারপর আমরা 

Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ ৭টি উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। আর সেগুলো হলো: 

  1. Tuition
  2. Freelancing 
  3. Connector 
  4. That is a writer for CEO’s
  5. Go to Editor for Creators 
  6. Blogging 
  7. Dropshipping

 

Student অবস্থায় কেন টাকা আয় করতে পারছেন না

যখনই আমরা স্টুডেন্ট অবস্থায় টাকা আয় করার কথা বলি তখন অধিকাংশ স্টুডে।ন্ট এটা মনে করেন যে স্টুডেন্ট অবস্থা টাকা আয় করার একমাত্র উপায় হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং করা বা অনলাইন থেকে টাকা আয় করা। আমরা হয়তো আমাদের আশপাশে এমন অনেক কেই দেখে থাকি যারা অনলাইন থেকে দৈনিক ৫$-১০$ ডলার আয় করছে। 

এটা দেখে আমরা তাদের ফলো করা বা তাদের কথা মতো বিভিন্ন ধরনের কাজ করার চেষ্টা করি। কিন্তু দিন শেষে আমরা ব্যর্থ হয়। আর এটার অন্যতম কারণ হচ্ছে। আমরা টাকার চেয়ে ডলারকে বেশি মূল্যায়ন করি, আমরা ইনকামের উপায় হিসেবে অনলাইনকেই বেছে নিন এবং আমরা অন্যদের ফলো করি। 

যেগুলো করা একদমই উচিত নয়। অন্যদের ফলো করা ভালো কিন্তু অন্যরা যেই কাজ করছে আমাকে সেই কাজটিই করতে হবে এমনটা ভাবা উচিত নয়। আপনি যদি এমনটি চিন্তা করেন তাহলে পৃথিবীতে মাত্র একটি পেশা থাকত। অন্যসব পেশায় মানুষ কাজ করত না। আপনি একবার ভাবুন তো একজন ব্যক্তি যদি কম্পিউটারের সামনে বসে মাসে ১ লক্ষ টাকা আয় করে। আর সেটা জেনে যদি একজন অন্ধ সারা জীবন কম্পিউটারের সামনে বসে থাকে তাহলে কি সে কখনও ইনকাম করতে পারবে?

আরোও পড়ুন:  মোবাইল দিয়ে ইকাম করার সেরা ৫টি টিপস। 

অব্যশই বলবেন না। কারণ সেই অন্যকে ফলো করলেও সেই নিজের জন্য উপযুক্ত পেশা বেছে নেয়নি। সেই অন্যের পেশায় নিজেকে সফল করতে চাচ্ছে। সুতারাং অন্যকে ফলো করার সাথে সাথে নিজের জন্য উপযুক্ত পেশা বা ঐধরনের ব্যক্তিদের ফলো করা উচিত। তবে এর চেয়ে ইনকামকে বেশি প্রাধান্য দিতে হবে। কারণ আপনি স্টুডেন্ট মানি আপনাকে ফ্রিল্যান্সিংই করতে হবে। ডলারেই উপার্জন করতে হবে এমনটি নয়। আপনি স্টুডেন্ট হয়েও অন্যকাজ করে টাকা উপার্জন করতে পারেন। আশা করি বুঝাতে পেরেছি।

 

Student অবস্থায় টাকা আয়

  • পার্টটাইম কম্পানিতে চাকরি করা

বর্তমানে বাংলাদেশের বিভিন্ন কম্পানিকে দেখা যায়। যারা স্টুডেন্টদের পার্টটাইম জব দিচ্ছে। অর্থাৎ সপ্তাহে যেকোন ৩ দিন ৩ ঘন্টা করে। যার জন্য তারা সর্বনিম্ন ৫ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন দিচ্ছে। যদিও এটি শহর অঞ্চলের স্টুডেন্টদের জন্য বেশি উপযুক্ত। কিন্তু গ্রাম অঞ্চলের স্টুডেন্টরা নিচের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করতে পারেন।

 

  • Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ উপায় টিউশনি করা 

বর্তমানে গ্রাম বা শহর সব জায়গায় কমবেশি টিউশনি পাওয়া যায়। যদিও শহর অঞ্চলের টিউশন গুলো একটি বেশি দামের হয়ে থাকে। কিন্ত বর্তমানে গ্রাম অঞ্চলেও ৫০০/১০০০ টাকার নিচে কোন টিউশনি নেই। আপনি যদি একজন স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে পার্টটাইম জব হিসেবে টিউশনিকে বেছে নিতে পারেন। আপনি যদি প্রতিমাসে ৫-১০ টি টিউশনি পড়ান এবং তারা ৫০০/১০০০ টাকা করে বেতন দেয়। তাহলে প্রত্যেকমাসে আপনি ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। যেটা ১০০$ এর সমান। 

 

Student অবস্থায় টাকা আয় করার উপায়

  • Student অবস্থায় টাকা আয় করার সহজ উপায় ফ্রিল্যান্সিং করা

ফ্রিল্যান্সিং পেশাটিও স্টুডেন্টদের জন্য উপযুক্ত একটি সম্মানের পেশা। যদিও এই কাজে পর্যাপ্ত সময়ের প্রয়োজন। কারণ একজন এক্সপার্ট ফ্রিল্যান্সার হওয়া ছাড়া অনলাইন থেকে ইনকাম করা প্রায় অসম্ভব। অনেকে হয়ত বলে থাকবে যে তাদের কাছ থেকে ফ্রিল্যান্সিং শিখলে ১-২ মাসের মধ্যে অনলাইন থেকে ইনকাম করা সম্ভব। যা সম্পূর্ণ মিথ্যে ও বানওয়াট কথাবার্ত। 

অনেক কুচিং সেন্টার আছে যারা ইনকাম করার গ্যারান্টি দিচ্ছে। আপনি হয়ত তাদের দু একটা রিভিউ ক্লাস ও দেখে থাকবেন। যেগুলোও অসলে সত্যি না। মূলত এসব কম্পানি অন্যদের পকেট থেকে টাকা দিয়ে রিভিউ করায়। আবার অনেক সময় এসব কম্পানি কোর্স ফি বেশি নিয়ে আপনার অজান্তে আপনার একাউন্টে কোর্স শেষে একটা/দুটি অর্ডার দিয়ে থাকে। যার জন্য তাদের ৫০০-১০০০ টাকা খরচ হয়। অন্যদিকে তারা কোর্স ফি ৫-১০ হাজার টাকা নিয়ে থাকে।

তাই ফ্রিল্যান্সিং শেখার ক্ষেত্রে সর্তকতা অবলম্বন করুন। যেকোন বিষয়ে ফ্রিল্যান্সিং শেখার পর আপনি ফাইবার, আপওয়ার্ক,  ফ্রিল্যান্সার, পিপলপরহাওয়ার বিভিন্ন ওয়েবসাইটে গিয়ে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে পারবেন এবং Student অবস্থায় টাকা আয় করতে পারবেন।

 

  • একজন কানেক্টর হিসেবে কাজ করুন

Student অবস্থায় টাকা আয় করতে আপনে একজন কানেক্টর হোন। কানেক্টরের কাজ কি? একজন কানেক্টরের কাজ হলো অন্যদের কানেক্ট করা। ধরুণ আপনি ফেসবুকিং করছেন। হঠাৎ দেখলেন কেউ একজন পোস্ট করল। আমি ইংরেজি শিখতে চাই একজন ভালো শিক্ষক দরকার। 

এখন আপনি যেটি করবেন ঐ পোস্টকে কপি করে কয়েকটি গ্রুপে শেয়ার করে দিন। এখন আপনাকে অনেকে নক দিবে। আপনি তাদের সাথে কথা বলে দেখবেন। যদি মনে হয় যে তারা সত্যিই এ ধরনের সার্ভিস দিয়ে থাকে। তাহলে তাদের বলবেন আমার কাছে একজন ব্যক্তি আছে যে ইংরেজি শিখতে চায়। আমি তার তথ্য আপনাকে দিবো। তার বিনিময় আপনি আমাকে ২০% কমিশন দিবেন। সে যদি রাজি হয়। তাহলে তাদের দুজনে কানেক্ট করে দিন। আর এভাবে কাজ না করেও Student অবস্থায় টাকা আয় করতে পারবেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 Comment