ফোনের RAM বাড়ানোর উপায় ২০২৪

ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়, কিভাবে ফোনের RAM বাড়ানো যায়, ফোনের RAM বৃদ্ধির পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে চান অনেকে। তাই এই পোস্টে ফোনের RAM বাড়ানোর উপায় সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো।

 

ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

RAM এর Full meaning হলো: random-access memory এর কাজ হলো কম্পিউটারের কেন্দ্রীয় প্রক্রিয়াকরণ ইউনিটের জন্য স্বল্পমেয়াদী মেমরি স্টোরেজ হিসাবে ব্যবহৃত মাধ্যম বা সহজ ভাষায় RAM হলো কম্পিউটারের ডাটা সংরক্ষণের মাধ্যম। অর্থাৎ আপনার ফোনের যাবতীয় তথ্য বা উপাত্ত গুলোকে দীর্ঘমেয়াদি সংরক্ষণ করার মাধ্যম বা পদ্ধতিকে RAM বলে। নিম্নে কিছু অ্যান্ড্রয়েড ফোনের RAM বাড়ানোর উপায় তুলে ধরা হলো। 

আরোও পড়ুন: Wifi স্পিড বাড়ানোর ৫টি কার্যকরী উপায়

জেনে রাখা ভালো: প্রকৃতার্থে আপনি চাইলে যেকোন ফোনের RAM কে ২ জিবি থেকে ৪ জিবি বা ৬ জিবি করে নিতে পারবেন না। তবে আপনি চাইলে বর্তমান সময়ের আপডেট কিছু ফোন গুলোতে ভার্চুয়াল রেম বাড়িয়ে নিতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ: Infinix Hot 20i এই ফোনে ৬ জিবি রেম ও ১২৮ জিবি রোম রয়েছে। এখন আপনি চাইলে এর ভার্চুয়াল RAM দুই জিবি বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

 

Infinix ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

শুরুতে আমরা দেখব Infinix ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়। Infinix ফোনের RAM বাড়ানোর জন্য প্রথমে আপনার মোবাইলে থাকা setting অপশনে চলে আসুন। তারপর স্ক্রোল করে হালকা নিচের দিকে নামলে Special Function নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন। সেটিতে ক্লিক করুন। তাহলে আপনাকে পরবর্তী অপশনে নিয়ে যাবে। সেখানে MemFusion নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন সেটিতে ক্লিক করুন। 

কিভাবে ফোনের RAM বাড়াবেন

তাহলে 8 GB স্মাট ফোনের 2 GB, 3 GB ও 5 GB RAM বাড়াতে পারবেন। এখন নিচে Set virtual Ram অপশন ক্লিক করে আপনার পছন্দ অনুযায়ী RAM সিলেক্ট করে Modify and rested অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার Infinix ফোনের  RAM (রেম) বেড়ে যাবে।  এভাবে আপনি আপনার ফোনের  RAM বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

 

শাওমি (Xiaomi) ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

আপনি চাইলে শাওমি ফোনের ও ভার্চুয়াল RAM বাড়িয়ে নিতে পারবেন। শাওমি ফোনের রেম বাড়ানোর জন্য প্রথমে আপনার মোবাইল সেটিং অপশন যেতে হবে। তারপরে নিচে Additional setting নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন সেটিতে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার সামনে নতুন একটি অপশন চলে আসবে । সেখান থেকে নিচে নামলে দেখতে পাবেন Memory extension নামে একটি অপশন রয়েছে সেখানে ক্লিক করুন। এখন আপনার ফোনের 3GB RAM রাড়াতে পারবেন। এখন আপনি memory extension অপশন on করে দিন। তাহলে আপনার ফোনের রেম বেড়ে যাবে। 

 

OPPO ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

আপনার ফোনটি যদি OPPO ফোন হয়ে থাকে তাহলে আপনিও বাড়িয়ে নিতে পারেন আপনার ফোনের RAM কে। OPPO ফোনের RAM বাড়ানোর জন্য ফোনের সেটিং অপশনে চলে আসুন। তারপর উপরের সার্চ বক্সে RAM expansion লিখে সার্চ করুন। অথবা সেটিং থেকে About device অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার ফোন সম্পর্কিত অনেক তথ্য দেখতে পাবেন। সেখান থেকে RAM অপশনে ক্লিক করুন। তারপর RAM expansion অন করে দিন এং নিচে থেকে লাইটি টেনে আপনার RAM কে ২ জিবি ৪ জিবি বা ৬ জিবি করে নিতে পারবেন। 

সকল ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

RAM বৃদ্ধির পর আপনার ফোনকে একবার Restart করুন। তাহলে আপনার ফোনের সক সেটিং আপডেট বা পুনরায় চালু হয়ে যাবে। সেই সাথে আপনার রেম ও কাজ করা শুরু করবে। এভাবে করে আপনি আপনার OPPO ফোনের RAM বাড়িয়ে নিতে পারবেন। 

 

Vivo ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

যারা Vivo Y22 বা আপডেট Vivo ফোন ব্যবহার করছেন তারা যেভাবে ফোনের রেম বাড়াবেন। Vivo ফোনের RAM বাড়ানোর জন্য প্রথমে ফোনের অ্যাপ ট্যাব থেকে সেটিং অপশনে ক্লিক করুন। তারপর উপরের সার্চ বারে ক্লিক করে RAM লিখে সার্চ করুন। তাহলে আপনার সামনে RAM রিলেটেড অনেক গুলো অপশন প্রদর্শিত হবে। সেখান থেকে Extended RAM অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনাকে Extended RAM ভিতরে নিয়ে যাবে। এখন Extended RAM অপশন On করে দিন। 

Vivo ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

তাহলে ৫ সেকেন্ড অপেক্ষা করতে বলা হবে। ৫ সেকেন্ড পর Restart Now বাটন পাবেন। সেখানে ক্লিক করলে আপনার ফোনটি Restart হবে এবং আপনার ফোনের RAM ৪ জিবি বেড়ে ৮ জিবি হয়ে যাবে। 

 

Samsung ফোনের RAM বাড়ানোর উপায়

আপনাদের মধ্যে যারা Samsung ফোন ইউজার তারা চাইলে তাদের ফোনের RAM ৬ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে দিতে পারবেন। Samsung ফোনের রেম বাড়ানোর জন্য প্রথমে Setting অপশনে চলে আসুন। তারপর নিচে স্ক্রোল করে Battery and device care অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনি অনেক গুলো অপশন দেখতে পাবেন। সেখান থেকে Memory অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার RAM এর ব্যবহার দেখতে পাবেন।   

আরোও পড়ুন: ঔষুধের দাম জানুন অনলাইনে/ ওষুধ কিনে আর ঠকবেন না

এখন একটু নিচে স্ক্রোল করলে RAM plus অপশন দেখতে পাবেন। এখন Samsung ফোনের RAM বাড়ানোর জন্য RAM plus অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনি ২ জিবি ৪জিবি ও ৬ জিবি RAM অপশন দেখতে পাবেন। সেখান থেকে আপনার প্রয়োজন অনুসারে যেকোন একটি সিলেক্ট করুন। তাহলে Restart অপশন দেখতে পাবেন। এখন রিস্টার্ট এ ক্লিক করে ফোনটি একবার Restart করে নিন। তাহলে আপনার কাঙ্খিত RAM পরিবর্তীত হয়ে যাবে। 

এছাড়াও আপনি Setting অপশন থেকে প্রায় যেকোন ফোনের RAM বাড়িয়ে নিতে পারবেন। যদি ফোনটি Updated ও Virtual Ram ফিচারসটি available থাকে। 

ভার্চুয়াল RAM কি কাজ করে

এখন অনেকে জানতে চান ভার্চুয়াল রেম এর কাজ কি? বা এটি কি মেইন রেম এর মতই কাজ করে? তাদের এই প্রশ্নের প্রতিউত্তরে আমি বলব না। ভার্চুয়াল রেম Main RAM না। মূলত Virtual রেম মেইন রেম এর সহায়ক হিসেবে কাজ করে থাকে। উদাহরণস্বরূপ আপনার ফোন ব্যাকগ্রাউন্ডে ৫টি অ্যাপ নিতে পারছে। কিন্তু ৫টির অতিরিক্ত হলে যেকোন একটি অ্যাপকে Remove করতে হচ্ছে। 

এমতবস্থায় আপনার ফোনে যদি Virtual RAM চালু থাকে তাহলে অতিরিক্ত অ্যাপসটি ভার্চুয়াল RAM এ ট্রান্সফার হয়ে যাবে। ফলে আপনি যদি অতিরিক্ত অ্যাপে ক্লিক করেন তাহলে সেটি ভার্চুয়াল RAM থেকে বের হয়ে এসে মেইন RAM ঢুকে যাবে এবং মেইন RAM থেকে একটি অ্যাপ ভার্চুয়াল রেমে ট্রান্সফার হয়ে যাবে। Virtual RAM মূলত এভাবে মেইন রেমকে সাপোর্ট দেওয়ার মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের সাহায্য করে থাকে। 

আশা করি আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে ফোনের RAM বাড়ানোর যায় এবং ভার্চুয়াল RAM এর কাজ কি। এই ধরনের নিত্য নতুন পোস্ট পেতে চোখ রাখুন বঙ্গভাষা ওয়েবসাইট। ধন্যবাদ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 Comment