কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম A টু Z | যেই ভুলে বাতিল হবে আবেদন।

কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার অনুরোধ রইল। প্রতিবছর কোরিয়া সরকারি বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অসংখ্য কর্মী নিয়োগ দিচ্ছেন। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ২০২৩ সালে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১০ হাজারের ও অধিক শ্রমিক মোটা অংকের বেতনে কোরিয়া পাড়ি জমিয়েছেন। আবার অনেকে আবেদন করে হতাশ হয়েছেন। 

প্রতিবছরের মতো এবারাও যারা কোরিয়া লটারি আবেদন করার কথা ভাবছেন। তাদের সকলের কোরিয়া লটারি আবেদন করার সঠিক নিয়ম সম্পর্কে জানা উচিত। অন্যথায় এবারও কোরিয়া লটারি আবেদন করে ব্যর্থ হতে হবে। তাই আজকের পোস্টে আমরা কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম এবং যেই ভুলে বাতিল হবে আবেদন সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। তোহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম এবং যেই ভুলে বাতিল হতে পারে আপনার আবেদন। 

 

কোরিয়া লটারি আবেদন 

গত বছরের ন্যায় এ বছরও বাংলাদেশ থেকে সরকারিভাবে লটারির মধ্যে প্রায় ১২ হাজার ৪০০ জন লোক নেওয়া হবে কোরিয়ান ভাষা পরীক্ষার জন্য। যার ফলাফল প্রকাশ করা হবে অনলাইনে। আগামী ৪ই মার্চ এবং ৫ই মার্চ এই দুই দিন অনলাইনে মাধ্যে কোরিয়া ভাষা পরীক্ষা জন্য অনলাইন নিবন্ধন করা হবে। 

BOESL এর তথ্য অনুযায়ী এ বছর সর্বমোট ১২,৪০০ শ্রমিক লটারির মাধ্যমে কোরিয়া ভাষা অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। তবে এই আবেদন যদি ১২,৪০০ কম হয় তাহলে আবেদনের উপর ভিত্তি করে সঠিক ডকুমেন্ট যাচাই পূর্বক প্রত্যেককে ভাষা পরিক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া হবে। 

কিন্তু আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন সঠিক আবেদন প্রকৃিয়া না জানার করণে ভাষা পরীক্ষায় অংশগ্রহনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। তাই তাদের জন্য আজকের পোস্টটি। এই পোস্টে কোরিয়া ভাষা পরীক্ষা অংশগ্রহণের উপায় ও আবেদন বাতিল হওয়ার কারণ গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচন করা হলো। 

 

কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম 2024

কোরিয়া লটারি আবেদন করার জন্য এই ঠিকানায় এসে eps.boesl.gov.bd আপনার Passport number, NID number, Birth certificate ও পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর ও অন্যান্য তথ্য দিয়ে আবেদন দাখিল করুন। 

বিস্তারিত: অনলাইনে খুব সহজে নিজের মোবাইল অথবা কম্পিউটার থেকে কোরিয়া লটারি আবেদন করতে পারবেন যেকেউ। কোরিয়া লটারি আবেদন করার জন্য প্রথমে ফোনের ইন্টারনেট সংযোগটি চালু করুন। তারপর যেকোন ব্রাউজারের এড্রেসবারে eps.boesl.gov.bd registration 2024 লিখে সার্চ করুন। তাহলে আপনার সামনে BOESL এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি শো করবে সেখানে প্রবেশ করুন। অথবা এখানে ক্লিক করে সরাসরি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। 

সেখানে আসার পর আপনি Submit application ও Download admit card নামের দুটি অপশন দেখতে পাবেন। যেহেতু আপনি প্রথমিকভাবে আবেদন করবেন তাই Submit application অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে একটি ফর্ম দেখতে পাবেন। 

কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম
কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম ২০২৪ (বঙ্গভাষা)

 

সেখানে আপনার Passport নম্বর ও নিচে থাকা ক্যাপসা পূরণ করে Submit বাটনে ক্লিক করতে হবে। মনে রাখবেন সার্ভার জটিলতার কারণে অনেক সময় আবেদন সাবমিট হতে প্রবলেম হবে। তাই পাসপোর্ট নম্বর কপি করে পেস্ট করবেন এবং বার বার সাবমিট করবেন। তাহলে একটা সময় সাবমিট হয়ে যাবে। তারপর আপনাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে আসা হবে। সেখানে আপনাকে পাসপোর্ট অনুসারে কিছু তথ্য দিতে হবে যেমন: 

  • Passport number
  • Your name
  • Father name
  • Mother name
  • Gender 
  • Date of birth
  • NID
  • Address 
  • Passport scanned copy 
  • Passport size photo
  • Education qualification 
  • Industry category 
  • Industry sub category ইত্যাদি।

সবগুলো তথ্য সঠিকভাবে বসানো হলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনাকে একটি সাবমিশন আইডি দিবে এবং একটি নোটিশ দেখাবে সেটি ভালোভাবে পড়ে। সাবমিশন আইডিটি সংরক্ষণ করুন। যেটি চুড়ান্ত পর্যায়ে আবেদন করার সময় প্রয়োজন হবে। 

কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম ২০২৪

কোরিয়া লটারি চুড়ান্ত আবেদন প্রক্রিয়া

আপনি যদি প্রথমিক পর্যায়ে উপনীত হন তাহলে আপনাকে ৫০০ টাক ফি প্রদান পূর্বক চুড়ান্ত আবেদন করতে হবে। চুড়ান্ত পর্যায়ে আবেদন করতে একই নিয়মে BOESL ওয়েবসাইটে চলে আসুন। তাহলে আপনি একটি ফর্ম দেখতে পাবেন। যেখানে আপনার Passport নম্বর, পেমেন্ট গেটওয়ে ও Transaction ID দিয়ে আবেদন শুরু করতে হবে। তার মানি শুরুতে আপনাকে ৫০০ টাকা ( অফেরতযোগ্য) দিয়ে কোরিয়া লটারি আবেদন শুরু করতে হবে। 

 

কোরিয়া লটারি আবেদন ফি ৫০০ টাকা জমা প্রক্রিয়া 

আপনি চাইলে বিকাশ অ্যাপ থেকে খুব সহজে কোরিয়া লটারি আবেদন ফি ৫০০ টাকা পরিশোধ করতে পারেন। যার জন্য প্রথমে ফোন থেকে বিকাশ অ্যাপটি ওপেন করতে হবে। তারপর হোম পেইজ থেকে ‘এডুকেশন ফি’ অপশনে ক্লিক করুন। 

‘Education fee’ তে ক্লিক করার পর একটু নিচের দিকে গেলে BOESL ট্রেনিং একটা অপশন দেখতে পাবেন সেখানে ক্লিক করুন। তারপর আপনার পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে ‘পে করতে এগিয়ে যান’ অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনাকে ৫০০ টাকা পে করতে বলা হবে। এখন পে করতে ‘পরের ধাপে যেতে ট্যাপ করুন’ অপশনে ক্লিক করে আপনার বিকাশ পিন দিয়ে পেমেন্ট সম্পন্ন করুন। 

আরোও পড়ুন: NID কার্ডের ভুল সংশোধনের নিয়ম ২০২৪

পেমেন্ট সম্পন্ন হলে আপনাকে একটা ট্রানজেকশন হিস্ট্রি (Trnx ID) দেখাবে। সেটি কপি করে নিন। আপনি বিকাশ SMS এর মাধ্যমেও ট্রানজেকশন আইডিটি দেখতে পাবেন। এখন Trnx ID কপি করার পর। BOESL ওয়েবসাইটে ফিরে আসনু। তারপর আপনার Passport নম্বর, বিকাশ পেমেন্ট গেটওয়ে ও Transaction ID দিয়ে নিচে থেকে ক্যাপসাটি পূরণ করে Submit বাটনে ক্লিক করুন। 

কোরিয়া চুড়ান্ত লটারি আবেদন করার নিয়ম

তাহলে আপনাকে পরের ধাপে নিয়ে আসা হবে। এখন পাসপোর্ট অনুসারে আপনার নাম, লিঙ্গ, পাসপোর্ট ইস্যু ডেট, পাসপোর্ট এক্সপায়ার ডেট, জন্ম নিবন্ধন সাল, মাস ও তারিখ, শিক্ষাগত যোগ্যতা, পাসপোর্ট স্ক্যান কপি, পাসপোর্ট সাইজ  ফটো, NID, ইমেইল, ইন্ডাস্ট্রি ক্যাটাগরি, ইন্ডাস্ট্রি সাব-ক্যাটাগরি ইত্যাদি সঠিকভাবে পূরণ করে Submit বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার আবেদনটি সম্পন্ন হবে এবং আপনাকে একটি আবেদন ফর্ম বা রিসিট দেওয়া হবে। সেটি ডাউনলোড করে নিন। যা পরবর্তীতে আপনার প্রয়োজন হবে। 

 

কোরিয়া লটারি আবেদন যেই ভুলে বাতিল হবে আবেদন

মাত্র ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কোরিয়া লটারি আবেদন করতে হবে। যার জন্য এসময় প্রচুর মানুষের  সমাগমের কারণে দেখা দেয় সার্ভার জটিলতা। কারণ প্রত্যেক চাইবেন ১২,৪০০ জনের মধ্যে আবেদন সম্পন্ন করতে। তাহলে আর Waiting list এ থাকতে হবে না। আর এভেবে তাড়াহুড়া করে আবেদন করতে গিয়ে আমরা বিভিন্ন ধরনের ভুল করে থাকি। আর যেই ভুলের কারণে সবচেয়ে বেশি আবেদন বাতিল হয় তহলো : Typing mistake

অর্থাৎ আমরা যখন তুড়াহুড়া করে আবেদন করি। তখন আমরা তুড়াহুড়া বশত আমাদের নিজেদের নামের বানান, পাসপোর্ট নম্বর, NID নম্বর ইত্যাদি। তথ্য ভুল করে থাকি। আর যে কারণে আমাদের অধিকাংশ আবেদন বাতিল হয়ে যায়। 

আরোও পড়ুন: পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে যেকোন দেশের ভিসা চেক করার নিয়ম ২০২৪

BOESL সাইটে নিবন্ধন করার জন্য সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ হলো পাসপোর্ট ও ছবি। BOSEL থেকে এ দুটি বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা দিয়ে দেওয়া হয়েছে যেমন: আপনার ছবি সাইজ কত হবে, রেজুলেশন কত হবে, পাসপোর্টের ধরণ, ফাইল সাইজ ইত্যাদি। 

আমরা অনেকে পাসপোর্ট সাইজ Reduce করতে গিয়ে পাসপোর্ট সাইজ ও ছবি সাইজ এতটাই কম করি যে সেটা স্পষ্টভাবে বুঝা যায়না। যার ফলে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা এসব অস্পষ্ট আবেদন বাতিল করে দেয় বা তথ্য সংগ্রহের সময় ভুল তথ্য সাবমিট করে। যার কারণে আপনার আবেদনটি বাতিল হয়ে যেতে পারে। তাই সঠিক সাইজের সঠিক ছবি ও ফাইল আপলোড করার চেষ্টা করুন। 

এছাড়াও এ বছর কোরিয়া লটারি আবেদনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ শর্ত (Terms & conditions) দেওয়া হয়েছে। যেমন যারা ভাষা পারদর্শীতে চূড়ান্ত আবেদন করেছেন। তারা লাটারির মধ্যমে আবেদন করতে পারবেন না। আপনি যদি আবেদন করেও থাকেন তাহলে আপনার আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে এবং আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও আরোও ১৪ টি শর্ত প্রকাশ করা হয়েছে। যার কোন একটি শর্ত বাদ পড়লে আপনার আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে। 

শর্তগুলো হলো: 

কোরিয়া লটারি আবেদন শর্ত

উপরোক্ত যোগ্যতা গুলো যদি কারো মধ্যে বাতিল থাকে। তাহলে BOESL থেকে তার কোরিয়া লটারি আবেদন বাতিল করা হবে। তাই আবেদনের পূর্বে BOESL এর প্রকাশিত শর্ত অনুযায়ী আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটার থেকে ছবি সাইজ, পাসপোর্ট সাইজ ও অন্যান্য ডকুমেন্ট প্রস্তুত করে রাখুন। এতে করে আবেদনের সময় কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হবে না। 

নোট: আপনি যদি লাইন ধরে কম্পিউটার দোকান থেকে কোরিয়া লটারি আবেদন করতে যান তাহলে আপনার আবেদনের সময় শেষ হতে পারে। বা তাদের কোন ভুলে আপনার বাতিল হতে পারে। তাই এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণের জন্য নিজে নিজে আবেদন করুন। 

আশা করি আর্টিকেলটি পড়ে আপনি জানতে পেরেছেন কোরিয়া লটারি আবেদন করার নিয়ম এবং আবেদনের সময় কোন কোন ভুল গুলো করা যাবেন না/কোন কোন ভুল করলে আপনার আবেদন বাতিল হতে পারে। এরকম আরোও গুরুত্বপূর্ণ কনটেন্ট ও কোরিয়া লটারি আবেদন রেজাল্ট আপডেট পেতে চোখ রাখুন বঙ্গভাষা ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 Comment