৫ মিনিটে জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি মোবাইল দিয়ে ২০২৩

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি: শিশু জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে তার জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক। কোন কারণ বশত সেই ডেট বিলম্ব হলে অনাধিক ৫ বছরের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করা অতিব জরুরি। আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন যাদের জন্ম নিবন্ধন এখন পর্যন্ত ডিজিটাল অর্থাৎ ইংরেজি করণ করা হয়নি। তারা চাইলে ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে নিজের অথবা অন্যদের জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি করতে পারবেন। অর্থাৎ বাংলা এবং ইংরেজি দুটি ভার্সনে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করতে পারবেন। 

জন্ম নিবন্ধন কেন বাংলা থেকে ইংরেজি করব?

বর্তমান সময়ে যেকোন কাজেই জন্ম নিবন্ধনের স্মার্ট কপি অর্থাৎ ইংরেজি ভার্সন ব্যবহৃত হচ্ছে। স্কুল ভর্তি, ভার্সিটি একজাম, চাকরি, বিবাহ, অনলাইন জব, পাসপোর্ট তৈরি প্রায় সব ক্ষেত্রেই জন্ম নিবন্ধনের ইংরেজি কপি প্রয়োজন হয়ে পড়ে। তাই আপনার জন্ম নিবন্ধনটি যদি বাংলা হয় তাহলে আজেই সেটিকে ইংরেজি করে ফেলুন।

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি করতে প্রথমে মোবাইলের ইন্টারনেট সংযোগটি অন করে নিন। এখন মোবাইলের ক্রোম ব্রাউজারটি Open করুন এবং এড্রেস বারে bdris.gov.bd লিখে সার্চ করুন। তাহলে আপনি একটি ওয়েবসাইটে পৌঁছে যাবেন। যেখান থেকে বাংলা জন্ম নিবন্ধকে ইংরেজি করতে পারবেন। 

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি

এখন ওয়েবসাইটের Header থেকে 3 ডট লাইনে ক্লিক করুন। তারপর জন্ম নিবন্ধন অপশনে ক্লিক করুন। তাহল আরোও কত গুলো অপশন পেয়ে যাবেন। যদি জন্ম নিবন্ধন অপশনটি কাজ না করে তাহলে তার ওপর চাপ দিয়ে ধরে রাখুন তাহলে আপনি কতগুলো অপশন পেয়ে যাবেন। এখন অপশন গুলো থেকে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন অপশনে ক্লিক করুন। তারপর স্ক্রোল করে একটু নিচের দিকে আসনু। তাহলে আপনি এরকম একটি পেইজ পেয়ে যাবেন। 

জন্ম সনদ বাংলা থেকে ইংরেজি করার নিয়ম

এখন জন্ম নিবন্ধন নম্বর ঘরে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি বসিয়ে দিন এবং ২য় ঘরে জন্ম তারিখ বসিয়ে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে নিচে নতুন আরেকটি অপশন পেয়ে যাবেন। এখন নির্বাচন করুন অপশনে ক্লিক করে কনফার্ম করে দিন। এখন ওপরের দিকে একটু স্ক্রোল করুন তাহলে আপনি নিবন্ধন কার্যালয়ের ঠিকানা অর্থাৎ আপনার ঠিকানা সিলেক্ট করার একটি অপশন পেয়ে যাবেন। 

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি পরিবর্তন

এখন দেশ, বিভাগ, জেলা, উপজেলা ইত্যাদি সঠিকভাবে সিলেক্ট করুন এবং পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনি সংশোধিত তথ্য নির্বাচন একটি অপশন পেয়ে যাবেন। এখন আপনি যেই যেই তথ্য গুলো সংশোধন করতে চাচ্ছেন সেগুলো সিলেক্ট করুন। যেমন: 

  • বিষয় অপশনে* → ইংরেজি নাম (সিলেক্ট করুন)
  • চাহিত সংশোধিত তথ্য*→ আপনার ইংরেজি নাম (নির্ভুল ভাবে লিখে দিন)
  • সংশোধনের কারণ* → ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছিল (সিলেক্ট করুন)

আপনি যেহেতু সম্পূর্ণ জন্ম নিবন্ধন কার্ডকে বাংলা থেকে ইংরেজি করতে চাচ্ছেন তাই আপনাকে +আরো তথ্য সংযোজন করুন অপশনে ক্লিক করে আপনার পিতা মাতার নাম সহ অন্যান্য তথ্য পরিবর্তনের আবেদন করতে হবে।  তাই +আরো তথ্য সংযোজন করুন অপশনে ক্লিক করুন এবং পূর্বের মতো- 

  • বিষয় অপশনে* → পিতার ইংরেজি নাম (সিলেক্ট করুন)
  • চাহিত সংশোধিত তথ্য*→ পিতার ইংরেজি নাম (নির্ভুল ভাবে লিখে দিন)
  • সংশোধনের কারণ* → ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছিল (সিলেক্ট করুন)

আবারও +আরো তথ্য সংযোজন করুন অপশনে ক্লিক করুন এবং আপনার মাতার তথ্য যুক্ত করুন যেমন:

  • বিষয় অপশনে* → মাতার ইংরেজি নাম (সিলেক্ট করুন)
  • চাহিত সংশোধিত তথ্য*→ মাতার ইংরেজি নাম (নির্ভুল ভাবে লিখে দিন)
  • সংশোধনের কারণ* → ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছিল (সিলেক্ট করুন)

সব গুলো তথ্য সঠিকভাবে সিলেক্ট বা নির্বাচন করার পর নিচে থেকে আপনার জন্ম স্থানের ঠিকানা গুলো সঠিকভাবে বেছে নিন। যেমন:- 

  • দেশ
  • বিভাগ
  • ডাকঘর
  • সিটি কর্পোরেশন/ উপজেলা
  • ইউনিয়ন
  • গ্রাম
  • সড়ক নম্বর ইত্যাদি

একইভাবে আপনার স্থায়ী ঠিকানা গুলো সঠিকভাবে বেছে নিন। তারপর নিচের দিকে স্ক্রোল করুন। তাহলে আপনি আবেদনকরীর ঠিকানা বা তথ্য সিলেক্ট করার একটি অপশন পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে আবেদনকারীর নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেল এড্রেস ইত্যাদি পূরণ করুন। 

আরোও পড়ুন: ২০২৩ সালের সেরা ১০টি AI টুলস সম্পর্কে জানলে অবাক হবেন

সবগুলো তথ্য ফিলআপ করার পর নিচে আপনি +সংযোজন একটি বাটন পেয়ে যাবেন। সেখানে ক্লিক করে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য আপলোড করুন। যাতে করে তারা আপনার ভুল তথ্যগুলো খুব সহজে আইডেন্টিফাই করতে পারে।  

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি করতে যেই তথ্য গুলো সংযোজন করবেন তাহলো:

জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি করতে নিন্মোক্ত ডুকুমেন্ট গুলো যুক্ত করার চেষ্টা করুন যেমন: 

  • জাতীয় পরিচয়পত্র
  • মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট
  • বর্তমান জন্ম নিবন্ধন সনদ
  • পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স (Optional) 

তথ্য সংযোজন করার ক্ষেত্রে অব্যশই মনে রাখবেন আপনার প্রতিটা ফাইল সাইজ যেন ১০০ কিলোবাইট (kb) মধ্যে থাকে। অন্যথায় ফাইল গুলো সার্পোট করবে না। ফাইল সাইজ কম করার জন্য গুগলের সাহায্য নিতে পারেন। অথবা চাইলে ইউটিউবে ভিডিও দেখে কাজটি করতে পারেন।

ফাইল আপলোডের পর একটু নিচে স্ক্রোল করুন এবং পেমেন্টের মাধ্যম হিসেবে ফি আদায় সিলেক্ট করুন। তারপর আবারও কয়েকবার ওপরের সকল তথ্য ভালোভাবে চেক করে নিন। যেন কোন ধরনের ভুল না থাকে। সব চেক করার পর সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার আবেদনটি সফল ভাবে সাবমটি হয়ে যাবে। এখন আপনি চাইলে আবেদনপত্রটি প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। তবে মোবাইলে আবেদন করলে আবেদন পত্রের নম্বরটি কোথাও নোট করে রাখুন। 

এখন আপনি চাইলে কম্পিউটার দোকান থেকে প্রিন্ট করে নিতে পারেন। অথবা প্রদত্ত নম্বরটি নিয়ে নির্দিষ্ট ডেটে সিটি কর্পোরেশনে গেলে তারা সেটি প্রিন্ট করে নিবে। সির্টি কর্পোরেশনে যাওয়ার সময় আপনি যেসকল তথ্য সংযোজন করেছেন সেগুলোর ও একটি করে কপি সাথে নিয়ে যাবেন। এবং আবেদন পত্রের সাথে জমা করে আসবেন। তারা সবগুলো তথ্য ভালোভাবে চেক করবে এবং কিছু দিনের মধ্যে আপনাকে আপডেট জানিয়ে দিবে। 

আবেদনের ফি পরিশোধ

ইউনিয়ন পরিশোধ বা সিটি কর্পোরেশন গিয়ে নগদ টাকা দিয়ে ফি রশিদটি নিয়ে আসতে পারবেন। অথবা মোবাইল ব্যাকিং ও ফি পরিশোধ করতে পারবেন। 

মনে রাখবেন: আবেদন পত্রে অব্যশই চেয়ারম্যান বা ইউনিয়ন পরিশোধ সচিব কর্তিক স্বাক্ষর ও সিল অব্যশই থাকতে হবে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *